শিরোনাম
চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ পরিদর্শক ওসি’র উদ্যোগে যানজট মুক্ত চৌমুহনী চৌরাস্তা পিকেএসএফ-এর সহকারী মহাব্যবস্থাপক কর্তৃক দাবী মৌলিক উন্নয়ন সংস্থায় আরএমটিপি’র উপ-প্রকল্প কার্যক্রম পরিদর্শন। আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা অভয়নগরে মা’র লাশ বাসায় রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিল ছেলে বগুড়ার কৃতি সন্তান রামপুরা থানার সাব ইন্সপেক্টর মুমিনুর রহমানকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। বগুড়া গরিব দুঃখীদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ। দাবী’ নওগাঁয় পিকেএসএফ প্রতিনিধির উপস্থিতিতে তরুণ উদ্যোক্তাদের অর্থায়ন ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক অগ্রগতি আলোচনা সভা।  পিকেএসএফ ও বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধি দলের দাবী মৌলিক উন্নয়ন সংস্থায় রেইজ প্রকল্প পরিদর্শন রাজশাহী বাঘার গৌরাঙ্গপুর নতুন বছরের প্রথম দিনে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা পেল নতুন বই!  যারা শেখ হাসিনার দেয়া নৌকাকে অস্বীকার করছে, তারা বিশ্বাসঘাতক-মীরজাফর- বাদশা জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে নতুন বছরে নতুন বই বিতরণ উৎসব অনুষ্ঠিত। 
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৫৬ অপরাহ্ন

রাণীশংকৈল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঔষধ কোম্পানির কর্মীদের দৌরাত্বে অতিষ্ঠ সাধারণ রোগীরা

মোঃ আব্দুল জব্বার স্টাফ- রিপোর্টারঃ / ১৯১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২৩

মোঃ আব্দুল জব্বার স্টাফ- রিপোর্টারঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল হাসপাতালে ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের দৌরাত্ম দিন দিন বেড়েই চলছে | তাদের দৌরাত্মে নানা হয়রানি ও দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন রোগীরা | চিকিৎসকের কক্ষে সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ২:৩০ মিনিট পর্যন্ত ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকলেও মানছেন না কেউ | রোগীরা বের হলেই ব্যবস্থাপত্র নিয়ে চলে টানাহেচরা |এতে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ছেন রোগীরা | ২৭ এপ্রিল ( বৃহষ্প্রতিবার) সকালে হাসপাতালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়–ইমার্জেন্সির ভিতরে এবং বাইরে এবং অন্য কক্ষগুলোর দরজার সামনেও রোগীর চেয়ে ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের উপচে পড়া ভিড় | কোন রোগীকে চিকিৎসকের কক্ষে দেখলেই ৮-১০ জন প্রতিনিধি ওই কক্ষের ভিতরে এবং বাইরে ভিড় জমাচ্ছেন | সরকারি এ হাসপাতালটিতে ইমারজেন্সিতে ডিউটিতে থাকা ডাক্তার মোঃ আব্দুস সালামকে ঔষধ কোম্পানীর লোকের কথা জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন আপনারা ডাক্তার সামাদ চৌধুরীকে জিজ্ঞাসা করেন। রোগীরা ডাক্তারের কক্ষ থেকে বের হওয়া মাত্রই বিভিন্ন ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা তাদের পথে দাঁড় করিয়ে সেটির ছবি তুলে রাখেন |এভাবেই প্রতিদিন চলছে সরকারি এ হাসপাতালটিতে বিভিন্ন ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের দৌরাত্ম এবং রোগীদের হয়রানি | নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক রোগী বলেন- আমি ডাক্তারের কক্ষে ঢুকেই দেখি ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা ওই চিকিৎসকের সঙ্গে কেউ বসে, কেউ দাঁড়িয়ে কথা বলছেন | এ বিষয়ে টি এইচ আব্দুস সামাদ চৌধুরীকে ফোন দিয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান– আমি ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের হাসপাতাল থেকে সরানোর জন্য ইউএনও এবং থানায় বলেছিলাম কারন তাদের সরাতে পুলিশের ডান্ডার প্রয়োজন আছে |


এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ