শিরোনাম
চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ পরিদর্শক ওসি’র উদ্যোগে যানজট মুক্ত চৌমুহনী চৌরাস্তা পিকেএসএফ-এর সহকারী মহাব্যবস্থাপক কর্তৃক দাবী মৌলিক উন্নয়ন সংস্থায় আরএমটিপি’র উপ-প্রকল্প কার্যক্রম পরিদর্শন। আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা অভয়নগরে মা’র লাশ বাসায় রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিল ছেলে বগুড়ার কৃতি সন্তান রামপুরা থানার সাব ইন্সপেক্টর মুমিনুর রহমানকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। বগুড়া গরিব দুঃখীদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ। দাবী’ নওগাঁয় পিকেএসএফ প্রতিনিধির উপস্থিতিতে তরুণ উদ্যোক্তাদের অর্থায়ন ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক অগ্রগতি আলোচনা সভা।  পিকেএসএফ ও বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধি দলের দাবী মৌলিক উন্নয়ন সংস্থায় রেইজ প্রকল্প পরিদর্শন রাজশাহী বাঘার গৌরাঙ্গপুর নতুন বছরের প্রথম দিনে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা পেল নতুন বই!  যারা শেখ হাসিনার দেয়া নৌকাকে অস্বীকার করছে, তারা বিশ্বাসঘাতক-মীরজাফর- বাদশা জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে নতুন বছরে নতুন বই বিতরণ উৎসব অনুষ্ঠিত। 
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:০৮ অপরাহ্ন

মতুয়া মাতা , মমতা বালার ডাকে, ধর্মতলার রানী রাসমণি রোডে মহাসমাবেশ ।

শম্পা দাস ও সমরেশ রায় , কলকাতা / ৩৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

আজ ২৮ শে ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার, ঠিক দুপুর বারোটায়, অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসংঘের উদ্যোগে এবং মতুয়া মাতা, মমতা বালার ডাকে, নিঃশর্ত ভারতীয় নাগরিক প্রদানের দাবীতে এক বিশাল মহাসমাবেশ। বিভিন্ন জেলা থেকে কয়েক হাজার মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষ জড়ো হয়েছিলেন এই সমাবেশে ,ঢোল, কাঁসাবাজিয়ে, এবং বিভিন্ন রাস্তা দিয়ে প্রশাসন করে তারা এই সমাবেশে হাজির হন, তাদের একটাই দাবী আমরা ভারতীয় নাগরিক, আমরা ভারতীয় নাগরিক হয়ে থাকতে চাই বাঁচতে চাই, আমাদের উপর বিভিন্নভাবে আক্রমণ করা হচ্ছে কেন আমাদের জন্ম এখানে, আমাদের আধার কার্ড এখানের ভোটার কার্ড ও রেশন কার্ড এখানের, তবুও আমরা কেন ভারতীয় নয়, তার বিচার চাই। আমরা এত সহজে কেন্দ্র সরকারের আইন মেনে নেব না, থেমে থাকবো না ,আমরা আমাদের অধিকার আদায় করে নেব, আমরা বাইরে থেকে উড়ে এসে বসি না, মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষের সাথে এত ঘৃন্য আচরণ কেন, দরকার হলে আমরা আরো সঙ্ঘবদ্ধ হবো ,দেখব কিভাবে আমাদের নাগরিকত্ব চলে যায়। এবং আমরা দিল্লি অভিযান করতেও দ্বিধা করবো না, যেভাবে কৃষকেরা তাদের দাবী আদায় করে নিয়েছেন, দিল্লিতে অনশন করে, সরকারকে বাধ্য করিয়েছে, আমরাও তাই করতে বাধ্য হব। দেখি কিভাবে আমাদের আটকাতে পারে, আর কত মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষের উপর অত্যাচার করতে পারে। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন মতুয়া মাতা , মমতা বালা যিনি এই মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষের পাশে সব সময় থাকেন মতুয়াদের কথা ভাবেন। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন গরগ চট্টোপাধ্যায়, পার্থ বিশ্বাস, প্রসেনজিৎ মন্ডল ,নবীন বিশ্বাস, স্বপন বিশ্বাস ,বিরাট চন্দ্র বৈরাগ্য, থেকে শুরু করে সকল নেতৃবৃন্দ ও মতুয়া সম্প্রদায়ের সদস্যবৃন্দরা, যিনি বড়মা ও কপিল কৃষ্ণ ঠাকুরের আশীর্বাদ ধন্যা মমতা বালা ঠাকুর বলেন, যাহাকি সবাই মা বলে ডাকেন তিনি আজ হুংকারের সহিত কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্রভাবে আক্রমণ করলেন, এবং বেশ কিছু কেন্দ্রীয় সরকারের আইন কিভাবে লঙ্ঘিত হয়েছে তার ব্যাখ্যাও দিলেন। যা আজও কার্যকরী হয়নি বরং সেই আইনকে পেছনে ফেলে মতুয়া সম্প্রদায়ের উপর অত্যাচার নিয়ে নামিয়ে আনছেন। এবং তাদেরকে উৎখাত করার চেষ্টা করছেন, এবং বিভিন্ন চিলায় মতুয়াদের উপর অত্যাচার ও তাদেরকে ধরে ধরে খুন করা হচ্ছে, তিনি আরো বলেন কাদের ভোটে বিজেপি সরকারের এক মন্ত্রী দাঁড়িয়েছেন। রাজত্ব করে চলেছেন। আজ তাদেরকে লাঞ্ছিত করা হচ্ছে। আর বরদাস্ত করা যাবে না, ২৪ এর ভোটে তারাই প্রমাণ করে দেবে, বিজেপি সরকারের ঠাঁই নাই । যাদের এখানে সব কিছু আছে তাদেরকে বলা হচ্ছে তারা ভারতীয় নাগরিক নয় অথচ তাদের ভোটে জিতে মন্ত্রিত্ব পেয়ে কোটি কোটি টাকা কামিয়েছে, এমনকি এনআরসির নামে সতের লাখ মানুষকে নাগরিক কর্তব্যহীন করেছে সারা ভারতে , ১২ লক্ষ হিন্দু বাঙালি এবং বেশিরভাগই মতুয়া সম্প্রদায়ের,। বেশিরভাগ আসামি মতুয়াদের উপর অত্যাচার খুন কোন কিছু করতে বাকি রাখেন নি, আর নয় যদি মতুয়াদের উপরে অত্যাচার নেমে আসে ,আমরা মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ মতো ,দরকার পড়লে দিল্লি অভিযান করব। এর সাথে সাথে বললেন আজ আমরা রাজ্যপালের কাছে একটি ডেপুটেশন দেওয়ার কথা ছিল ,কিন্তু আমাদেরকে যেতে দেওয়া হয়নি। এর সাথে সাথেই মায়ের কথায় এক জোট হয়ে বললেন, আমরা সবাই মায়ের পাশে আছি, মা যেমন নির্দেশ দেবেন ,আমরা সেই মতো কাজ করব ,পিছিয়ে পড়বো না। আজ থেকে শুরু হলো আমাদের এই সংগ্রাম ও আন্দোলন । আর ঠাকুরনগরকে আর দুষিত হতে দেব না । রিপোর্টার , শম্পা দাস ও সমরেশ রায় , কলকাতা


এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ