শিরোনাম
চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ পরিদর্শক ওসি’র উদ্যোগে যানজট মুক্ত চৌমুহনী চৌরাস্তা পিকেএসএফ-এর সহকারী মহাব্যবস্থাপক কর্তৃক দাবী মৌলিক উন্নয়ন সংস্থায় আরএমটিপি’র উপ-প্রকল্প কার্যক্রম পরিদর্শন। আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা অভয়নগরে মা’র লাশ বাসায় রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিল ছেলে বগুড়ার কৃতি সন্তান রামপুরা থানার সাব ইন্সপেক্টর মুমিনুর রহমানকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। বগুড়া গরিব দুঃখীদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ। দাবী’ নওগাঁয় পিকেএসএফ প্রতিনিধির উপস্থিতিতে তরুণ উদ্যোক্তাদের অর্থায়ন ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক অগ্রগতি আলোচনা সভা।  পিকেএসএফ ও বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধি দলের দাবী মৌলিক উন্নয়ন সংস্থায় রেইজ প্রকল্প পরিদর্শন রাজশাহী বাঘার গৌরাঙ্গপুর নতুন বছরের প্রথম দিনে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা পেল নতুন বই!  যারা শেখ হাসিনার দেয়া নৌকাকে অস্বীকার করছে, তারা বিশ্বাসঘাতক-মীরজাফর- বাদশা জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে নতুন বছরে নতুন বই বিতরণ উৎসব অনুষ্ঠিত। 
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৫৮ অপরাহ্ন

আজও অসহায় মানুষের পাশে, সমাজসেবী উদয় মিত্তাল ।

শম্পা দাস ও সমরেশ রায় , কলকাতা / ৫৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২৩

২১শে ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার, কলকাতা শরৎচন্দ্র বসু রোডের সংযোগস্থলে, দেড়শ জনের বেশি অসহায় , ফুটপাতবাসী মানুষকে একবেলা পেটের অন্য যোগীয়ে চলেছেন প্রতি বৃহস্পতিবার সমাজসেবী উদয় মিত্তাল, সম্পূর্ণ নিজের উপার্জনের টাকায়, তাহার পথচলা শুরু হয়েছিল ১০ জন মানুষকে খাইয়ে, আর সেখান থেকেই আজ তিনি বিভিন্ন জায়গায় এই খাওয়ানোর ব্যবস্থা করে থাকেন , প্রায় ছয় থেকে সাত বছর এইভাবে তিনি চালিয়ে যাচ্ছেন এবং মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করছেন, তবে শুধু খাওয়ানোই নয়, তিনি জানান, আমি নিজের সাধ্যমত যখন যেটা পারি ,গরমকালের সময় জামা কাপড় , শীতকালে কম্বল যত জনকে পারি দেওয়ার চেষ্টা করি এবং বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে,, প্রথম আমি শুরু করি সোনারপুর এলাকায় ১০ জন মানুষের পেটের অন্য যোগীয়ে । উদয় বাবু বলেন, আমার পথ চলা ছোটবেলা থেকে বাবার হাত ধরে ,যখন দেখতাম বাবা এইভাবে অসহায় মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করতেন কিছু করতে ,।আর সেখান থেকেই আমার আগ্রহ, আরসি বাবাকে অনুসরণ করে আজো আমি এই সকল মানুষের পাশে রয়েছি, তিনি আরো বলেন আমার ইচ্ছা অনেক কিছু আছে যদি সবার সহযোগিতা থাকে নিশ্চয়ই আমি এগিয়ে যেতে পারবো, আরো একটি কথা বলেন আমি কাউকে খেতে এসে ফিরাই না চেষ্টা করি যতক্ষণ সম্ভব তাদেরকে খাইয়ে নিজেকে ধন্য মনে করি। এবং এই সকল অসহায় মানুষের পাশে থাকতে পেরে আমি নিজেকে কৃতজ্ঞ মনে করি, উদয়বাবু এমনটাই জানালেন। যে সকল অসহায় মানুষ দূর দূরান্ত থেকে খেতে আসেন ,তারা বললেন ,আমরা এমন একজনকে মানুষকে পেয়েছি, যিনি এই দিনটিতে আমাদের এক বেলা পেটের অন্য যোগিয়ে চলেছেন ,শুধু তাই নয় ,আমাদের বিভিন্নভাবে সাহায্য করে থাকেন, যখন যেটা পারেন ,আমরা চাইলে না বলে না। এবং ফেরায় না,


এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ