শিরোনাম
চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ পরিদর্শক ওসি’র উদ্যোগে যানজট মুক্ত চৌমুহনী চৌরাস্তা পিকেএসএফ-এর সহকারী মহাব্যবস্থাপক কর্তৃক দাবী মৌলিক উন্নয়ন সংস্থায় আরএমটিপি’র উপ-প্রকল্প কার্যক্রম পরিদর্শন। আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা অভয়নগরে মা’র লাশ বাসায় রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিল ছেলে বগুড়ার কৃতি সন্তান রামপুরা থানার সাব ইন্সপেক্টর মুমিনুর রহমানকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। বগুড়া গরিব দুঃখীদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ। দাবী’ নওগাঁয় পিকেএসএফ প্রতিনিধির উপস্থিতিতে তরুণ উদ্যোক্তাদের অর্থায়ন ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক অগ্রগতি আলোচনা সভা।  পিকেএসএফ ও বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধি দলের দাবী মৌলিক উন্নয়ন সংস্থায় রেইজ প্রকল্প পরিদর্শন রাজশাহী বাঘার গৌরাঙ্গপুর নতুন বছরের প্রথম দিনে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা পেল নতুন বই!  যারা শেখ হাসিনার দেয়া নৌকাকে অস্বীকার করছে, তারা বিশ্বাসঘাতক-মীরজাফর- বাদশা জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে নতুন বছরে নতুন বই বিতরণ উৎসব অনুষ্ঠিত। 
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:০২ অপরাহ্ন

বগুড়ায় দেশীয় অস্ত্রের কারখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ

রিপোটারের নাম / ২৬৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার :

বগুড়া জেলার কাহালুতে দেশীয় এক নলা বন্দুক কারখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। সেই সঙ্গে আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির বিপুল সরঞ্জামসহ ছেলে এবং বাবাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শুক্রবার ১৫ এপ্রিল রাতে বগুড়া কাহালু উপজেলার মালঞ্চা ইউনিয়ন এর কলমাশিবা গ্রাম থেকে উক্ত আসামীদের কে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার কৃতরা হলেন কলমাশিবা গ্রামের মৃত দেবেন্দ্রনাথ প্রামানিকের ছেলে নিলু চন্দ্র প্রামানিক (৪৫) এবং নিলু চন্দ্রের ছেলে সঞ্জিত চন্দ্র প্রামানিক (২২)
শনিবার ১৬ এপ্রিল বেলা ১২টায় বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার জনাব সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী তার নিজ কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার বলেন, ১৪ এপ্রিল মধ্যরাতে কলমাশিবা গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে একরাম হোসেন সরদার ওরফে বগা (৩২) নামে এক যুবকের দুই পায়ে গুলি করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার তদন্তকালে সন্দেহভাজন হিসেবে নিলু ও তার ছেলে সঞ্জিতকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী নিলুর বাড়ি থেকে পলেথিনে পেচানো অবস্থায় বিপুল পরিমাণ দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার করা যন্ত্রাংশের মধ্যে এক নলা বন্দুক তৈরির পাঁচটি ব্যারেল, লোহার তৈরি তিনটি রিকয়েলিং স্প্রিং, ৬টি ফায়ারিং পিন, স্টিলের তৈরি ৬টি বন্দুকের ট্রিগার, এক নলা বন্দুক তৈরির স্টিলের খাপ পাঁচটি, বন্দুক তৈরির কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সাইজের ১৯টি লোহার পাত, লোহার তৈরি জং ধরা ১টি ব্যারেলের শেষ অংশ, ৩টি লোহার রড, ড্রিল মেশিনের মাথায় ব্যবহৃত ৪টি লোহার ফলা, লোহার তৈরি হ্যামার ৬টি এবং চারটি স্টিলের পাত।

পুলিশ সুপার আরও জানান, দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র অর্থাৎ এক নলা বন্দুক তৈরির বিভিন্ন যন্ত্রাংশ উদ্ধারের ঘটনায় কাহালু থানার একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে আরো তদন্তের স্বার্থে গ্রেফতার কৃত দের রিমান্ডে নিতে আদালতে আবেদন জানানো হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।


এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ